Uncategorized

Film Review: Nirbaak

nirbaak

ফিল্ম সমালোচনা: নির্বাক
 
যেমন নাম তেমনই effect. এটাকেই বোধহয় বলে Induction Effect. নির্বাক দেখে আমিও দেখলাম বাকরূদ্ধ হয়ে গেছি। Bore হয়ে।
 
মোট চারটে গল্প। সব গল্পেই একজন common চরিত্র। তিনি সুস্মিতা সেন। তাঁর চরিত্রের নাম কি বুঝলাম না। কোথাও কোন সংলাপেই তাঁর চারিত্রিক নাম প্রকাশ হয়নি। শক্ত ব্যাপার কিন্তু, এসব দিক থেকে সৃজিত মুখার্জির সিনেমা বরাবরই স্বতন্ত্র। মনে হল, চরিত্রটা একজন লেখিকার। কবিতা আউরাচ্ছেন যেখানে, সেই দৃশ্যটা ভাল লাগলনা। কবিতাটা শ্রীজাতর লেখা। মোটামুটি রেশ রাখে এমন। বেশীক্ষণ মনে থাকবার কথা না।
 
বিখ্যাত Spanish চিত্রশিল্পী Salvador Dali’র একটা interesting painting আছে, যেখানে একটা গাছ মানুষের মুখের আকৃতি নিয়েছে। সেখান থেকেই এই সিনেমার অনুপ্রেরণা। জীবিত জিনিসের মধ্যে শুধু নিজের নিজের জাতি বা প্রজাতির মধ্যেই কেন প্রেম হবে ? উদ্ভিদ কথা বলেনা। কোথাও যেতে পারেনা, কিন্তু ভালবাসতে কি ক্ষতি ? বিশেষত যখন একজন চকাচক চেহারার মেয়ে রোজ রোজ কাছে এসে বসছে। কখনও শুয়েও পড়ছে। আর মেয়েদের ওড়নার তো জন্মই হয়েছে উড়ে যাওয়ার জন্য। একটু স্হাপত্য নাহলে দেখা যাবে কিকরে ? গাছেরও চোখ আছে, সে চোখ দিয়ে গাছ ড্যাবড্যাবিয়ে সব দেখে। উত্তেজিত হয়। পৌরুষ প্রকাশ করে। শিল্পভাবনা সুন্দর কিন্তু somehow মনে দাগ কাটেনা।
 
অন্ঞ্জন দত্তের জায়গাটা তো আরও গা ঘিনঘিনে। Narcissism ওখানকার concept. কোনও কোনও অংশ দেখে ভাল লাগল, হাসির জায়গায় হাসলাম, কিন্তু চুম্বনদৃশ্যটা just দেখা যাচ্ছিলনা। Masturbation-এর দৃশ্যে উনি অবশ্য সাবলীলতার পরিচয় দিয়েছেন। ঠিকঠাক অভিব্যক্তি আর শব্দ সমেত।
 
মৃতদেহের সাথে প্রেম-বিয়ে-অনুরাগ বিনিময় গ্রহণযোগ্য হয়নি আমার মনে। তার সাথে বলিউডি ঝিনচ্যাক গান আরও বেমানান। ঋত্বিক চক্রবর্তী ভালই করেছেন কিন্তু দুর্বল script-এর কারণে এই জায়গাটা এতটাই হাস্যকর যে গোটা cinema hall হাসছিল। আমার পাশে বসা মধ্যবয়সী কিন্তু কেতাদুরস্ত জামাকাপড় পড়া চারজন দর্শক সিনেমা শেষ হওয়ার আগেই বিরক্তির বহিঃপ্রকাশ স্বরূপ hall ছেড়ে প্রস্হান করলেন।
 
একমাত্র সুন্দর আর মন ছুঁয়ে যাওয়া গল্পটা হল কুকুর-মানুষ প্রেমের অংশটা। Title credit-এ দেখলাম কুকুরটার নাম Chi Chi. অবশ্যই পরিচালক আর ক্যামেরার (সৌমিক হালদার) কেরামতি। ভীষণরকম স্বাভাবিক expression কুকুরের। মুগ্ধ হয়ে দেখছিলাম।
 
নীল দত্তের Background score যথাযথ। সুস্মিতাকে সুন্দর লেগেছে কিন্তু দুর্বল বাংলা উচ্চারণ তাঁর নায়িকাসুলভ সৌন্দর্যের প্রতিকূল। সৃজিত মুখার্জির সিনেমা আজ অবধি সবকটাই ভাল লেগেছে, নির্বাক ছাড়া।
Advertisements
Standard

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s